দেওয়ানগঞ্জে নিজ স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টায় পুলিশ গ্রেফতার।

410

দেওয়ানগঞ্জে নিজ স্ত্রীকে হত্যার চেষ্ট

দেওয়ানগঞ্জ প্রতিনিধিঃ গত ৩০ জুন মঙ্গলবার জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার বাজার পাড়া আবুল কালামের বাড়ীতে নিজ স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টায় গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন দরিয়ে দেয় স্বামী শোভন আহমেদ। জানতে পেয়ে শোভন আহমেদকে (৩৬) গ্রেফতার করেছে দেওয়ানগঞ্জ থানা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শোভন আহমেদ ৫ বছর আগে নেত্রকোণা উপজেলার নবাব আলীর মেয়ে ইয়াছমিন আক্তারকে বিয়ে করে। শোভন আহমেদ শেরপুর জেলার শ্রীবরদী থানার পুলিশ হিসাবে কর্মরত আছেন। তার স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তার দেওয়ানগঞ্জে ব্র্যাকে চাকরি করেন। তারা দেওয়ানগঞ্জ আবুল কালাম আজাদের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে ৩০ জুন রাত সারে বারটা দিকে স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তারকে হত্যার চেষ্টায় গায়ে পেট্রল ঢেলে দেয় স্বামী শোভন। স্ত্রী ইয়াছমিনের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দেওয়ানগঞ্জ থানার পুলিশ শোভন আহমেদকে গ্রেফতার করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আহত ইয়াছমিন আক্তারকে ঢাকা শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রুহুল আমিন তালুকদার জানান, শোভন আহমেদ শ্রীবরদী থানায় ৪ মাস ধরে কর্মরত আছে কিন্তু ৩০ জুন থেকে থানায় অনুপস্থিত রয়েছে।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এম ময়নুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় আটক শোভন আহমেদকে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইয়াছমিন আক্তারের বড় বোন হাজেরা বেগম বাদী হয়ে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।