দেওয়ানগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রীর মৃত্যু।

408

 

ফরিদুল ইসলাম ফরিদ, দেওয়ানগঞ্জ প্রতিনিধিঃ জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ী পিআইসি’র আওতাধীন ডাংধরা ইউনিয়নের পান্তামারী গ্রামের আবুল কাশেম মাষ্টারের মেয়ে জান্নাতুল মাওয়া (বন্যা) (১৩) আজ শুক্রবার ৭আগস্ট দুপুর ১২ঃ৩০ টায় বাড়ির পাশে আবুল হোসেন (সাবেক চেয়ারম্যান) এর পুকুরে গোসল করার সময় পানিতে ডুবে মারা যায়।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, শুক্রবার ৭আগস্ট দুপুর ১২টার সময় সমবয়সী কিশোরীদের সাথে পুকুরে গোসল করেন, হঠাৎ করে ড্রেজারের সদ্য গভীরে পা পিছঁলে পড়ে যায়, সঙ্গীয় কিশোরী টেনে ধরার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়, মুহূর্তের মধ্যেই গভীর পানিতে তলিয়ে যায় বন্যা। তাৎক্ষণিক স্থানীয়রা ডুব দিয়ে খুঁজে বের করেন, সঙ্গে সঙ্গে রাজিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়, কর্তব্যরত চিকিৎসক বন্যাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।

বন্যার মৃত্যুর কারণে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

পার্শবর্তী বাড়ির রফিকুল ইসলাম বলেন- মেয়ে গুলো পুকুরে গোসল করতে ছিলো, হঠাৎ চিৎকার শুনে দৌড়ে এসে শুনি বন্যা পুকুরে ডুবে গেছে, সঙ্গে সঙ্গে পানিতে নেমে খুজতে থাকি, সদ্য ড্রেজার দিয়ে গর্তের গভীরতা এমন হয়েছে যে, বারবার ডুব দিয়েও ভয়ে শিউরে ওঠেছি।

জান্নাতুল মাওয়া (বন্যা) ডাংধরা সবুজ কুড়ি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী। ডাংধরা সবুজ কুড়ি প্রি-ক্যাডেট স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবু ইউসুফ সাংবাদিকদের জানান- জান্নাতুল মাওয়া (বন্যা) আমার স্কুলের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী, সে খুবই নম্র, ভদ্র, শান্ত ও মেধাবী ছিল। তাকে নিয়ে আমাদের ভবিষ্যৎ ভালো কিছু পরিকল্পনা ছিলো।

একই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মোঃ সোলায়মান হোসেন বলেন- আমরা বন্যার মত একজন নম্র,ভদ্র, শান্ত ও মেধাবী ছাত্রী হারিয়ে শোকাহত। আমি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।